কথা দেওয়া-নেওয়া

কথা দেওয়া-নেওয়া

স্বপ্না দাস



কথা দিচ্ছি,,

কখনো যদি অভিমানী চোখের জল পরে আরশিতে, তবে তোমায় ভেবে জলছবি আঁকবো না আমি আমার কল্পনাতে।

অনেক কথা জমানো রয়েছে হৃদয় গহীনে,যা তুমি কোনো দিনও বুঝবে না,আর আমি তোমাকে কখনই বুঝতেও দেবো না।। আমি কথা দিচ্ছি অতীত ভেবে প্রাচীন প্রেমে হৃদয় স্পন্দনের একাকীত্বের বিলাসিতায় তোমাকে খুঁজব না।কখনোই দূষিত মায়ায় তোমার মনের অন্দর মহলের চৌকাঠ মারাবো না। কখনো ভালোবাসার শ্লোগানে তোমার দাবিতে মুষলধারায় বৃষ্টি হয়ে তোমার উঠোনে ঝড়বো না।


তুমি ও কথা দাও,

যদি কখনো চেনা কেউ তোমায় ডাকে,তবে পিছন ফিরে আর তাকাবেনা?যদি অন্তহীন সুখের মরিচিকায় হাঁটতে হাঁটতে অতীতের ছিটেফোঁটা ক্ষন মনে পরে যায়, আর যদি তোমার সৌন্দর্যের লীলাভূমিতে আমার বিবর্ণ এলোমেলো ভাবনায় বার্ধক্যের তমসাচ্ছন্ন ঘেরা পিপাসার্ত ভালোবাসার ফুল তোমার হৃদয় কাননে ফুটে ওঠে? তবে সেই সবুজ বাগে  অচেনা গন্ধের কাঁটা যুক্ত ফুল ভেবে তিরস্কার করবে। কথা দাও,যদি কোনো জোয়ারের টানে তোমার পার্থিব জীবনে নতুন সুখের সন্ধান খুঁজে পাও তাহলে দোষ-গুন,যোগ-বিয়োগের হিসেব করে পিছনে ফিরে আসবেনা।নিভে যাওয়া মায়াবী বাতি ক্ষনিকের জন্য জ্বালিয়ে  ভস্মিত স্মৃতির নিষ্প্রভ ওই ধূসর ছাই গুলো দেখতে কখনোই এসোনা।